shopner bd
মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১ । ৭ বৈশাখ ১৪২৮ | ৭ রমজান ১৪৪২
×

গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী, দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ

  স্বপ্নের বাংলাদেশ ডেস্ক    ০২ এপ্রিল ২০২১, ১৭:১৭

গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী, দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ

করোনা স্বাস্থ্যবিধি মানাতে বর্ধিত ভাড়ায় গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী নেয়ায় দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।

এছাড়া ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করায় ক্ষুব্ধ অনেক যাত্রী। তারা বলছেন, অতিরিক্ত ভাড়া গুনতে গিয়ে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডা হচ্ছে পরিবহন শ্রমিকদের সাথে। অন্যদিকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনা থাকলেও অনেককেই মাস্ক ছাড়া বাসে উঠতে দেখা গেছে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী নেয়ার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। এ কারণে দুর্ভোগ পোহাতে হয় সাধারণ যাত্রীদের।

সরকারি, বেসরকারি অফিস-আদালত সবকিছু স্বাভাবিক নিয়মে চলায় বাসে নিয়মিত যাত্রীর সংখ্যা আগের মতোই রয়ে গেছে। কিন্তু সরকারি নির্দেশনায় বাসের অর্ধেক সিটে যাত্রী পরিবহনের কথা বলায় সংকট দেখা দিয়েছে।

সকাল থেকে অফিসগামী সাধারণ মানুষ বাসের সংকটে ভুগেছেন। দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থেকেও তারা বাসে উঠতে পারেননি। আবার যারা উঠতে পেরেছেন, তাদের সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী দিতে হয়েছে ৬০ শতাংশ বেশি ভাড়া। কোনো কোনো গণপরিবহনে ৬০ শতাংশেরও বেশি ভাড়া নেয়ার অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা।

আবার কিছু কিছু পরিবহন কোনো নির্দেশনার তোয়াক্কা না করে প্রতি আসনে যাত্রী বহনের পাশাপাশি দাঁড়িয়েও যাত্রী নিচ্ছে। অতিরিক্ত ভাড়া তো আদায় করছেই। এক বাস চালিয়ে উসুল করা হচ্ছে দুই বাসের ভাড়া

সংক্রমণ দ্রুত বৃদ্ধি পাওয়ায় সরকার গত সোমবার জনসমাগমে বিধিনিষেধ দিয়ে ১৮টি নির্দেশনা জারি করে। সেই সঙ্গে গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী নেয়ার শর্তে ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো হয়। যা কার্যকর হয় বুধবার।

যদিও পরিবহন মালিকদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো হলেও তা আদায়ে সমস্যা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পরিবহন শ্রমিকরা। তারা বলছেন, যাত্রীরা বাড়তি ভাড়া দিতে চায় না। ঝগড়া করে।

আর সুপার ভাইজার বলেন, ‘যাত্রী জোর করে উইঠা পড়ছে আমরা কি ধাক্কা দিয়া ফালাইয়া দিমু? আমরা তো বাসা থাইকা যাত্রী আনতাছি না। যাত্রীরা দেইখা হুইনাই উঠতাছে। আমাগো কি দোষ? যত জন যাত্রী উঠবো ততজন থেইকাই তো ভাড়া লমু, তাই না?’

দুই সিটে একজন যাত্রী উঠানোর নিয়ম করা হলেও তা মানা হচ্ছে না। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দেখা গেছে, সিটপ্রতি একজন করে বসানোর পরও দাঁড়িয়ে যাত্রী বহন করা হচ্ছে। খালি নেই ইঞ্জিনকাভারও। সে হিসেবে সুযোগ পেয়ে একটি বাস চালিয়ে দুটি বাসের ভাড়া আদায় করছেন কিছু পরিবহন শ্রমিক।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র

প্রধান সম্পাদকঃ মোহাম্মদ আবুল বশির
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ মনির হোসেন
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়ঃ ৩৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫

মোবাইলঃ +৮৮ ০১৮১৩ - ৮১৮৬৯৬

ফোনঃ +৮৮ ০২ - ৫৫০১৩৯৩৯

ইমেইলঃ shwapnerbd@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০২১ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।